AR Mubin

প্রকাশক ও সহ-সম্পাদকঅক্ষর

আলোর সাত রঙ

আলো আলো আমি কখনো খুঁজে পাব না। চাঁদের আলো তুমি কখনো আমার হবে না ! নাহ ! শিল্পীর এই ভুল ধারণা ভাঙাতে হবে ! এদিকে আসুন, এই আমি আপনাকে খুঁজে দেব আলো! শুধু চাঁদের আলো না, জগতের সব আলোই (আলোর ডিটেইলস আরকি!) আপনার নখদর্পনে চলে আসবে! শুরু করি- আলো বলতে কী বুঝি? আমজনতা দিনের বেলায় …

আলোর সাত রঙ Read More »

ডারউইন এর জগৎ (পর্ব-১)

ল্যাঙ্কাশায়ারের শ্রুসবেরি শহরে ১৮০৯ সালের ১২ই ফেব্রুয়ারি প্রথম পৃথিবীর আলো দেখি। ছয় ভাইবোনের মধ্যে আমি পঞ্চম। নাম- চার্লস রবার্ট ডারউইন। বাবা রবার্ট ডারউইন নামকরা ডাক্তার। দাদু ইরাসমাস ডারউইন তো ছিলেন আরও একধাপ এগিয়ে। একাধারে ডাক্তার, বিজ্ঞানী, লেখক, উদ্ভাবক, অনুবাদক,  দার্শনিক আবার কবিও! উনি Zoonomia নামে একটা বই ও লিখেছিলেন। সাহিত্যের কোনো বই না অবশ্য, বইটা …

ডারউইন এর জগৎ (পর্ব-১) Read More »

অঁতোয়ান লাভোয়াজিয়ে

অঁতোয়ান লাভোয়াজিয়ে: আধুনিক রসায়ন বিজ্ঞানের একজন জনক

আগেকার দিনের প্রায় মা বাবারা সন্তান বড়ো হয়ে কী হবে না হবে সেটা নিজেরাই ঠিক করে দিতেন। তারপর শুরু হত সন্তানকে “এটাই তোর পথ বাবা, এটাকেই ধ্যান জ্ঞান মনে করে জান উজার করে দে” -টাইপ কলা খাওয়ানো। এই কলা খাওয়ানোর প্রথা এখনো পুরোপুরি বিলুপ্ত হয়নি। প্যাশনকে পেশা হিসেবে বেছে নেয়ার পথে আজো বাবা মায়েরা প্রধান …

অঁতোয়ান লাভোয়াজিয়ে: আধুনিক রসায়ন বিজ্ঞানের একজন জনক Read More »

সরোপড

সরোপড : তৃণভোজী ডাইনোসরদের ঘুমন্ত ইতিহাস

৪৫৪.৩ কোটি বছরের প্রাচীন এই পৃথিবীটা। আমাদের হোমো স্যাপিয়েন্সদের উদ্ভব যেখানে মাত্র ২ লক্ষ বছর আগে। মহাকালের স্কেলে চোখের একটা পলক ফেলার মতো সময়ও তো এটা না। এর আগে কোটি কোটি বছর ধরে কত কত দানব জল স্থল কাঁপিয়ে পৃথিবীতে রাজত্ব করে গেছেন। আর রেখে গেছেন পৃথিবীর পরতে পরতে ঘুমিয়ে থাকা শতকোটি বছরের রোমাঞ্চকর ইতিহাস। …

সরোপড : তৃণভোজী ডাইনোসরদের ঘুমন্ত ইতিহাস Read More »

বই লেখার কলাকৌশল

লেখালেখি প্রসঙ্গে মার্ক টোয়েন বলেন, লেখালিখিটা তখনই সহজ, যখন ভুল শব্দগুলো উপেক্ষিত হয়। লেখক হিসেবে অকপটে বলতে পারি–একজন লেখকের ক্ষেত্রে লিখতে বসাটা খুবই পরিশ্রমী একটা কাজ। লেখাটা অটোম্যাটিক্যালি আসে না, এজন্য সময় এবং শ্রম উজাড় করে দিতে হয়। বই লিখার আগে অভিজ্ঞতা অর্জন করাটা জরুরি। আপনাকে সবার আগে একজন আদর্শ পাঠক হতে হবে। সাহিত্য সম্পর্কে …

বই লেখার কলাকৌশল Read More »

বাথিস্ফিয়ার

বাথিস্ফিয়ার, গভীর সমুদ্র দেখার প্রথম রোমাঞ্চ!

একমাত্র মানবসম্প্রদায়ের মধ্যেই কিছু জিনিয়াসের দেখা মেলে, যারা পাগলামির সীমা অতিক্রম করে সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিতে পারে! এই জিনিয়াস পাগলদের জন্যই বিজ্ঞান আজ লাফিয়ে লাফিয়ে পাহাড়সম উচ্চতায় পৌঁছে গেছে! দিনশেষে এই অভাবনীয় উৎকর্ষের পেছনে কিছু একগুঁয়ে, পাগলাটে, কাজপাগল ও ভূলোমনা মানুষদের অবদানই সবচেয়ে বেশি। তাইতো কোনো এক পাগল হঠাৎ আনমনে গেয়ে উঠেছিলেন–বাবা তোমার দরবারে …

বাথিস্ফিয়ার, গভীর সমুদ্র দেখার প্রথম রোমাঞ্চ! Read More »